logo
is forex legal in bangladesh

ফরেক্স বিষয়ক একান্ত সাক্ষাৎকারঃ কিছু জিজ্ঞাসা ও সমাধান

Question-01. Mr x:ফরেক্স ট্রেডিং কি বাংলাদেশে স্বীকৃত ?

Mohabbatelahi: ফরেক্স ট্রেডিং শুধু বাংলাদেশ নয় বরং সমগ্র বিশ্বে অনানুষ্ঠানিক ভাবেই স্বীকৃত। তবে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক এ বিজনেস থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। ২০১২ সালে বিশেষ এক নোটিশের মাধ্যমে Foreign exchange regulation Act.1947 অনুযায়ী বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য কারো পক্ষে বৈদেশিক মূদ্রা ক্রয়-বিক্রয়ের অনুমোদন নেই।

Question-02 Mr x: তাহলে আপনারা ফরেক্স ট্রেডিং করছেন কেন ?

Mohabbatelahi:উন্নত বিশ্বের প্রতিটি দেশের নাগরিকগন ব্যাংকিং উপায়ে ফরেক্স মার্কেটে বিনিয়োগ সুবিধা পেয়ে থাকে।কিন্তু একজন বাংলাদেশীর পক্ষে দেশের বাহিরে টাকা পাঠানোর কোন সুযোগ নেই। ফলে ফরেক্স ব্রোকার গুলো বাংলাদেশী ক্লায়েন্টদের জন্য ব্যাংকিং সুবিধা দিতে ব্যার্থ। তাই আমরা যারা ট্রেডিংয়ের সাথে সম্পৃক্ত তারা মূলত বাংলাদেশ ব্যাংক কতৃর্ক প্রদত্ত নোটিশের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই ফরেক্স ট্রেডিং করছি। কারন আমাদের পক্ষে বিদেশী কোন ব্যাংক একাউন্টে অর্থ পাঠানো সম্ভব নয়।

Question-03 Mr x: আপনারা কিভাবে ডিপোজিট করছেন ?

Mohabbatelahi:বাংলাদেশে খুবই স্বল্পসংখ্যক ফরেক্স ট্রেডার রয়েছে যারা এ মার্কেটে ট্রেড করার সৌভাগ্য অর্জন করতে পেরেছে।আমরা সাধারনত ফ্রিলেন্সিং সেক্টর থেকে উপার্জিত অর্থ দিয়েই ফরেক্স মার্কেটে ট্রেড করছি। কারন ফ্রিলেন্সিং সেক্টরে ব্যবহৃত পেমেন্ট প্রসেসরগুলোর মাধ্যমে ফরেক্স মার্কেটে বিনিয়োগ সুবিধা রয়েছে। যেমন আন্তর্জাতিক মাস্টারকার্ড কোম্পানী Payoneer কতৃর্ক প্রদত্ত মাস্টারকার্ড দিয়ে আপনি খুব সহজেই ফরেক্স মার্কেটে বিনিয়োগ করতে পারেন।

Question-04 Mr x: এ প্রক্রিয়াই ডিপোজিট কি আইন সঙ্গত ?

Mohabbatelahi: Payoneer একটি আন্তর্জাতিক মাস্টারকার্ড কোম্পানী।আর আপনি অবশ্যই জানেন যে মাস্টারকার্ড ইস্যু হয় ব্যাংক থেকে। সুতরাং এ কার্ড ব্যবহার করে বিনিয়োগ করা অবৈধ হবে কেন ? যদি বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সারদের জন্য Payoneer কার্ড ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয় তবেই এ প্রক্রিয়াই বিনিয়োগ অবৈধ বলা যেতে পারে। আর আপনি অবশ্যই জানেন যে Payoneer নিষিদ্ধ হলে বাংলাদেশে ফ্রিলেন্সিং সেক্টর মুখথুবড়ে পড়বে। তাছাড়া আরোও একটি বিষয় আপনাকে বিবেচনা করতে হবে আর তা হল, বাংলাদেশের কোন ব্যাংক থেকে Payoneer মাস্টাকার্ডে ডলার আপলোড করার সুযোগ নেই।

Question-05 Mr x: তাহলে আপনারা এ ডলার সংগ্রহ করেন কিভাবে ?

Mohabbatelahi: আমি আগেই বলেছি ফ্রিলেন্সিং সেক্টর থেকে উপার্জিত অর্থগুলো জমা হয় এ মাস্টারকার্ডে।সেখান থেকেই আমরা কিছু অর্থ যে যার সামর্থ অনুযায়ী ফরেক্স মার্কেটে বিনিয়োগ করছি। এখানে বাংলাদেশ থেকে কোন টাকা আউট গোয়িং হচ্ছেনা এবং সে সুযোগও নেই। আর যাদের কাছে এ কার্ড নেই তাদের পক্ষে ফরেক্স মার্কেটে প্রবেশেরও কোন সুযোগ নেই। দ্বিতীয়ত বাংলাদেশের অধিকাংশ ট্রেডারই ফরেক্স বিষয়ক বিভিন্ন প্রমোশন নিয়ে কাজ করে। ফলে সেসব ক্যাম্পেইন থেকে উপার্জিত অর্থগুলো তারা সরাসরি ট্রেডিং একাউন্টে ট্রান্সফার করার মাধ্যমে ট্রেডিং সুবিধা পেয়ে থাকে। সুতরাং আপনাকে উভয় প্রক্রিয়া সম্পর্কে যথাযথ জ্ঞান রাখতে হবে।

Question-06 Mr x: অনেকেই স্ক্রীল এবং নেটেলার নামক ই-কারেন্সি ব্যবহার করে এ বিষয়ে কি বলবেন ?

Mohabbatelahi: দেখুন স্ক্রীল এবং নেটেলার এগুলো সমগ্র বিশ্বে উম্মুক্ত।প্রতিষ্ঠান দুটি ব্যাংক অব ইংল্যান্ড থেকে অনুমোদিত। সমগ্র ফ্রিল্যান্সিং সেক্টর দাড়িয়ে আছে এ দুটি পেমেন্ট প্রসেসরের উপর। বিশ্বব্যাপী মিলিয়ন মিলিয়ন ক্লায়েন্টগন উক্ত দুটি উপায়ে অর্থ উত্তোলন করে থাকে।কিন্তু বাংলাদেশ থেকে এসব প্রতিষ্ঠানে ডলার আপলোড করার কোন সুযোগ নেই। কারন বাংলাদেশের সাথে এসব প্রতিষ্ঠানের কোন চুক্তি নেই। ফলে এসব প্রতিষ্ঠান থেকে আমরা সরাসরি বাংলাদেশের কিছু ব্যাংকে ডলার ইনকামিং করতে পারি তবে আউট গোয়িং সম্ভব নয়।

hotforex

Question-07 Mr x: স্ক্রীল এবং নেটেলারে ডলার আপলোড প্রক্রিয়া কি?

Mohabbatelahi: সাধারনত তিনটি উপায়ে এখানে ডলার আপলোড করা যায়। (এক) ফ্রিলেন্সিং সেক্টর থেকে উপার্জিত অর্থ। (দুই) পে-অনার মাস্টারকার্ড ব্যবহার করে ডলার আপলোড করা। (তিন) অন্য কোন ফ্রিলেন্সারের একাউন্ট থেকে ডলার ক্রয় করে নিজ একাউন্টে আপলোড করা।যেমন ধরুন আপনি বিদেশী কোন ক্লায়েন্টের কাজ করে ৫০০ ডলার আয় করলেন। এখন এ ডলার আপনি টাকায় রূপান্তর করতে গিয়ে অন্য কোন ফ্রিলেন্সারের কাছে বিক্রি করলেন যার এটা প্রয়োজন ছিল। হয়তো সে তার কোন প্রজেক্টে এ ডলার ব্যবহার করবে।

Question-08 Mr x: অনেকেই বলে এটা হুন্ডির মাধ্যমে আনা হয় ?

Mohabbatelahi: এটা সম্পূর্ন মিথ্যা কথা । কারন স্ক্রীল এবং নেটেলার কোম্পানীগুলো ট্রান্সেকশনে এক্সটার্নাল পাওয়ার দিচ্ছেনা। অর্থাৎ আপনি বাংলাদেশে কাউকে টাকা দিয়ে বিদেশ থেকে স্ক্রীল বা নেটেলার একাউন্টে ডলার আপলোড করাতে পারবেন না। কারন আপনাকে লেনদেন করতে হবে অভ্যন্তরীন অর্থাৎ দেশের ভিতরে। বিগত দিনে এমন লেনদেন করতে গিয়ে বাংলাদেশী অনেকেই একাউন্ট হারিয়েছে। অপর দিকে ব্যাংকিং উপায়েও তারা বাংলাদেশ থেকে টাকা গ্রহন করতে পারেনা। অতএব এখানে হুন্ডির প্রসঙ্গটি অবান্তর।

Question-09 Mr x: ফরেক্স ট্রেডারদের ডলারগুলো যখন বিদেশী ব্রোকারের একাউন্টে বিনিয়োগ হচ্ছে তখন সেটা কি বাহিরে চলে যাওয়া নয় ?

Mohabbatelahi: দেখুন , যদি কেউ ব্রোকার প্রদত্ত কোন প্রমোশন থেকে উপার্জিত অর্থ দিয়ে ট্রেড করে অথবা ফ্রিলেন্সিং সেক্টর থেকে উপার্জিত অর্থ দিয়ে ট্রেড করে তাহলে এমন প্রশ্ন অবান্তর। কারন আমি অনলাইন থেকে উপার্জিত অর্থ দিয়েই ট্রেড করছি। অতএব এ ক্ষেত্রে কারো আপত্তি থাকতে পারেনা। কিন্তু যদি আমি কারো থেকে ডলার ক্রয়ের মাধ্যমে বিনিয়োগ করে ট্রেড করি সে ক্ষেত্রে আপনি হয়তো বিষয়টির বৈধতা বা অবৈধতা প্রসঙ্গে আপত্তি তুলতে পারেন। কিন্তু এ প্রসঙ্গে আমার পরিষ্কার বক্তব্য হচ্ছে এই যে...........

দেখুন যদি “ডলার ক্রয়ের মাধ্যমে বিনিয়োগ” এ প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে টাকা বাহিরে চলে যাচ্ছে বলে দাবি করি, তাহলে এমন কাজের সাথে শুধু ফরেক্স ট্রেডার কেন সমগ্র বাংলাদেশই জড়িত। যেমন, আপনি যখন নির্দিষ্ট কোন ওয়েব সাইটে প্রবেশ করেন অথবা গুগলে কোনকিছু খুঁজেন তখন আপনার কম্পিউটার স্ক্রীনে বাংলাদেশী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হতে দেখবেন। ঠিক একই ভাবে যখন আপনি ইউটিউব কিংবা সোসাইল সাইটগুলোতে প্রবেশ করবেন তখনও বিভিন্ন ব্যানার এড কিংবা টেক্স এড আপনার কম্পিউটার স্ক্রীনে প্রদর্শিত হতে দেখবেন। কিন্তু আপনি কি কখনো ভেবেছেন বাংলাদেশী এসব প্রতিষ্ঠান কিভাবে চার্চ ইঞ্জিন বা সোসাইল সাইটগুলোতে এসব বিজ্ঞাপন বাবদ টাকা পরিশোধ করে ? আপনি অবশ্যই জানেন যে এসব চার্চ ইঞ্জিনগুলোতে বিজ্ঞাপন করা অনেক ব্যায়বহুল ব্যপার....!!

মজার বিষয় হল গুগল, ইয়াহু, ইউটিউব এবং ফেইসবুক সহ ইত্যাদি সাইটগুলো সরাসরি পরিচালিত হয় আমেরিকা ও কানাডা থেকে। তাহলে আমাদের দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো বিদেশী এসব কোম্পানীর কাছে বিজ্ঞাপন বাবদ টাকা পাঠায় কি ভাবে ? আমরা জানি বাংলাদেশ থেকে এসব প্রতিষ্ঠান বারাবর টাকা পাঠানোর কোন সুযোগ নেই, তাহলে তারা কিভাবে করছে এসব ? কোন আইনে করছে ? কোন প্রক্রিয়াই করছে ? বিষয়টি আমাকে বুঝিয়ে দিন। যদি তারা ব্যবসায়ীক স্বার্থে বিদেশী এসব কোম্পানিতে টাকা পাঠাতে পারে তাহলে আামরা ট্রেডারগন কি অপরাধ করলাম ?

দ্বিতীয়ত: ইন্টারনেট জগতে বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ ওয়েব সাইট চালু রয়েছে। আপনি বলুন এসব ওয়েব সাইট মালিকগন ডোমেইন এবং হুস্টিং বাবৎ প্রতিবছর কত লক্ষ ডলার বিদেশী প্রতিষ্ঠানগুলোকে পরিশোধ করছে ? এসব কি বিদেশে অর্থ পাচার নয় ? যদি আপনার চিন্তা করার মত মস্তিস্ক থাকে তবে নিশ্চয় আপনি আমার এ কথাগুলো বিবেচনায় নিবেন। আর যদি মূর্খ হোন তবে আপনার শুভ বুদ্ধি উদয় হোক এ দোয়া ছাড়া আমার পক্ষে আর কিইবা করার আছে বলুন ?

Question-10 Mr x: স্ক্রীল, নেটেলার এবং পে-অনারে বাংলাদেশী ফ্রিলেন্সারদের কি পরিমান ডলার মজুদ থাকতে পারে বলে আপনার ধারনা?

Mohabbatelahi: সরকারী হিসাব অনুযায়ী ফ্রিলেন্সিং সেক্টর থেকে বাংলাদেশের গড় বাৎসরিক আয়ের পরিমান ৩০০ মিলিয়ন ডলার।এসব ডলার আসে স্ক্রীল,নেটেলার,পে-অনার ইত্যাদি মাধ্যম হয়ে। আর এগুলোই মূলত ফ্রি্ল্যান্সারদের মাঝে অভ্যন্তরীন ভাবে একাউন্ট টু একাউন্ট কেনা বেচা হয়। ফলে সমগ্র ফ্রিলেন্সিং সেক্টর চলে মূলত এসব ইন্টারনাল লেনদেনের উপর ভিত্তি করে।

is forex legal in bangladesh

Question-11 Mr x: তাহলে ফরেক্স বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা কেন?

Mohabbatelahi:কয়েকটি কারনে ফরেক্স বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা থাকার যৌক্তিকতা আছে। যেমন (এক) ফ্রিলেন্সিং জগতে ফরেক্স হচ্ছে একুট ব্যাতিক্রম ধর্মী মার্কেটপ্লেস। বাংলাদেশে ফরেক্স ট্রেডিং বৈধতা পেলে শেয়ার মার্কেটের সিন্ডিকেট চক্র ও তাদের গডফাদারদের কপালে ভাঁজ পড়বে। (দুই) আমরা বাঙ্গালীরা একটু বেশি টেলেন্ট। যে কোন বিষয় কে এমএলএম সিস্টেমে রূপ দিতে ওস্তাদ। যার দরুন অতীতে মানুষ এসবের পিছনে পড়ে নিঃস্ব হয়েছে। সুতরাং এখন ফরেক্সের বিষয়ে কোন বক্তব্য যদি বাংলাদেশ ব্যাংকের না থাকে হয়তো এটাকে কেন্দ্র করে নতুন কোন ইউনিপে টু ইউর জম্ম হবে। (তিন) ফরেক্স বিষেয়ে জ্ঞান শূন্যতা। কারন যে দেশের অর্থ মন্ত্রী শেয়ার মার্কেট বুঝেনা তারা কিভাবে ফরেক্স বুঝবে ? জ্ঞান-বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তির যুগে আমরা এখনো অনেক বেশি পিছিয়ে আছি। শুধু মাত্র অজ্ঞতার কারনে।

Question-12 Mr x: তথাপী ফরেক্স বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা থাকার কারন আপনাদের বিরত থাকা উচিত নয় কি?

Mohabbatelahi: বাংলাদেশে সিগারেট, মদের বার, পতিতালয় ইত্যাদি সব সমাজ বিরোধী কাজ যদি ভ্যাট ট্যাক্স দিয়ে চলতে পারে তাহলে ফরেক্স কি অপরাধ করেছে ? যে দেশে ৪৭ শতাংশ স্নাতক পাস লোকই বেকার। যে দেশে প্রতি বছর গড়ে ২৫ লাখ লোক শ্রমবাজারে এসে কর্ম পায়না । যেদেশে মামা-খালু , ঘুষ ছাড়া চাকুরি হয়না সে দেশের শিক্ষিত জনগোষ্ঠি ৫ ট্রিলিয়ন ডলারের এ বিশাল প্লাটফর্মে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে আপনি আপত্তি করতে পারেন না। বরং বিষয়টি আমলে নিয়ে কিভাবে সমাজ কে উপকৃত করা যায় সে দিকে মনোযোগ দেয়া প্রয়োজন। এজন্যে আমি মনে করি উন্নত বিশ্ব থেকে পরিচালিত ব্রোকারগুলো থেকে দিক নির্দেশনা নেয়া যেতে পারে। এবং এটি সময়ের দাবিও বটে। সুতরাং বৃহত্তর বেকার জনগোষ্ঠির দিকে না তাকিয়ে উল্টোবাধা প্রদান করার অর্থ হচ্ছে সমাজে বৈষম্য তৈরি করা। তাই এদেশের তরুন প্রজম্মের উচিৎ সমাজের হাল ধরা। জাতি কে মূর্খ শাসকগোষ্ঠি থেকে মুক্ত করা। তবেই সমাজ সংস্কার হবে ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি আসবে।

Question-13 Mr x: বিষয়টি আপনি যেভাবেই বলেন না কেন এটা মানিলন্ডারিং পর্যায়ে পড়ে” এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে কি বলবেন?

Mohabbatelahi: দেশের ব্যাংক,বীমা,শিল্প প্রতিষ্ঠান লুটপাট করে যারা ইউরোপ,কানাডা,আমেরিকা,মালয়েশিয়াতে নিজেদের স্বর্গ রাজ্য বানাচ্ছে তারা কেউ ফরেক্স ট্রেডার নয়। তারা সবায় কিন্তু আইন প্রনেতা (সাংসদ) কিংবা প্রয়োগকারী। দেশের হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে যারা পাচার করছে এরা কিন্তু সবাই ভিআইপি। যাদের গাড়ির বহর আমাদের পথচলা থামিয়ে দেয়। সুতরাং এমন বৈষম্যমূলক আচরণ জ্ঞান-বিজ্ঞান ও আধুনিক সমাজে গ্রহনযোগ্য হতে পারেনা। সুতরাং বিবেকের কাছে প্রশ্ন করুন। আইন প্রনেতা ও প্রয়োগকারীগন অবৈধ পথে উপার্জিত টাকা, অবৈধ পথে পাচার করে বিদেশে স্বর্গ রাজ্য বানাবে আর শাসিত সমাজ ভাগ্য পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখতে পারবেনা এটা কেমন বিচার ? আর সাময়িকের জন্য যদি মেনেও নি টাকা টি বিদেশে যাচ্ছে। তাহলে আপনি বলুন আমি আমার বৈধ পথে উপার্জিত টাকা বৈধ পথে বিশ্বের যে কোন প্রান্তে ব্যবসায়িক কাজে ব্যায় করতে আপত্তি কিসের? যদি কেউ মনে করে যে এটি মানিলন্ডারিং তাহলে আমার মতে এ আইন সংশোধন করা উচিৎ।

দ্বিতীয়তঃ বর্তমান তরুন প্রজম্ম যেখানে বিভিন্ন অসামাজিক কাজে জড়িয়ে পড়ছে, সেখানে একজন ফরেক্স ট্রেডার চাইছে নিজের একটি সুন্দর ভবিষ্যত।সে চাইছে পরিবারের হাল ধরতে ।মা-বাবার বোঝাটি হালকা করতে এটাই কি তার অপরাধ ? চাকুরির বাজারের বছরের পর বছর CV জমা দিয়ে যখন কোন আলোর মুখ দেখছেনা তখন তার করনীয় কি হতে পারে ? তাকে নিয়ে দীর্ঘ দিনের মা-বাবার লালিত স্বপ্নের কি ফয়সালা হবে ? রাষ্ট্র কি প্রতিটি বেকার পরিবারে দায়িত্ব গ্রহন করবে নাকি এদেশে বেকার ভাতা চালু আছে ? রাষ্ট্র যতদিন এ দায়িত্ব ঘাড়ে তুলে না নিবে ততদিন রাষ্ট্রযন্ত্র আইনের দোহায় দিয়ে আমাদের বাধা দিতে পারেনা। কারন সংবিধান কোন ঐশী বানী নয় যে এটি না মানলে আমি গুনাহগার হবো। সুতরাং রাষ্ট্রের সম্ভব হলে বাংলাদেশী ট্রেডারদের জন্য আলাদা ফরেক্স ব্রোকারের ব্যবস্থা করে দিক। অন্যথায় নিরপেক্ষ থাকুক।

Question-14 Mr x: বাংলাদেশে ফরেক্স ট্রেডিং আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি পেলে সমাজ কতটুকু উপকৃত হবে বলে মনে হয় ?

Mohabbatelahi:ফরেক্স ট্রেডিং সমগ্র বিশ্বেই স্বীকৃত। আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতেও ফরেক্স ট্রেডিং কে কিছু সীমাবদ্ধতার মাধ্যমে বৈধতা দিয়েছেন। যেমন একজন ইন্ডিয়ান নাগরিক কে অবশ্যই কারেন্সি ট্রেডিংয়ে ইন্ডিয়ান ব্রোকার ব্যবহার করতে হবে। RBI (রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া) থেকে বিদেশী কোন ব্রোকারে ট্রেডিং অনুমোদন নেই। পাশাপাশি তাদের জন্য নির্দিষ্ট কিছু পেয়ারে ট্রেড করার সীমাবদ্ধতাও রাখা হয়েছে। যেমন EUR/INR,GBP/INR,JPY/INR,USD/INR তবে ১০-ই ডিসেম্বর ২০১৫ সালে RBI ফরেক্স মার্কেটের জনপ্রিয় প্রধান তিনটি কারেন্সি পেয়ারেও ইন্ডিয়ান নাগরিকদের ট্রেডিং সুবিধা প্রদান করেছে। পেয়ারগুলো হচ্ছে EUR/USD,GBP/USD,এবং USD/JPY. তবে ইন্ডিয়া ছাড়াও বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশ ফরেক্স ট্রেডিং কে বিশেষ সীমাবদ্ধতার মাধ্যমে বৈধতা দিয়েছেন । দেশগুলো হচ্ছে

Belarus,Bosnia&Herzegovina,BritishColumbia(Canada)Bulgaria,Burma,China,Cuba,Indonesia,IvoryCoast,Iran,Liberia,Macedonia,Malaysia Montenegro, Myanmar,Nigeria,North Korea,Pakistan,Quebec,Romania,South Korea,Sri Lanka,Helena,Sudan,Syria,Ukraine,Zimbabwe

উল্লেখিত রাষ্ট্র সমূহে ফরেক্স কিছু সীমাবদ্ধতার ভিত্তিতে বৈধ। তবে নিষিদ্ধ নয়। অর্থাৎ এককথায় ফরেক্স ট্রেডিং সমগ্র বিশ্বেই উম্মুক্ত। কোথাও বিশেষ নিয়মে কোথাও কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতা ছাড়া। তাই আমি মনে করি বাংলাদেশ ব্যাংকও বিষয়টি ভেবে দেখবে। যদি ঢাকা ও চিটাগাং স্টক এক্সেচেঞ্জের আওতায় বিশেষ কয়েকটি ট্রেডিং সিম্বল যথা USD/BDT,GBP/BDT,EUR/BDT সহ ফরেক্স মার্কেটে জনপ্রিয় প্রধান সিম্বলগুলোতে ট্রেডিং সুবিধা দেয়া যায় তবে নিঃসন্দেহে এদেশের লক্ষ লক্ষ ট্রেডার উপকৃত হবে।

hotforex

দ্বিতীয়তঃ বর্তমানে যারা ফ্রিলেন্সিং জগতে কাজ করছে এদের মধ্যে প্রতি ৫০ জনের একজনও এ দাবি করতে পারবেনা যে তারা প্রতি সপ্তাহে বা মাসে ফ্রিলেন্সিং সাইটগুলো থেকে নিয়মিত কাজ নিতে পারে। এটা আমার দীর্ঘ ৯ বছরের ফ্রিলেন্সিং ক্যারিয়ার থেকে বলছি। সুতরাং আমি মনে করি যদি বাংলাদেশে ৫ লক্ষ শিক্ষিত যুবক কে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে সম্পৃক্ত করানো যায় এবং তাদের দৈনিক গড় আয়ের পরিমান ৫ ডলার করেও হয় তবে মাসে ২২ ট্রেডিং দিবসে তাদের মোট আয়ের পরিমান দাড়াবে ৫ কোটি ৫০ লক্ষ ডলার। বছরে যার পরিমান প্রায় ৬৬ কোটি বা সাড়ে ছয় মিলিয়ন ডলার। সুতরাং আমি বিশ্বাস করি বৃহত্তর বেকার জনগোষ্ঠির জন্য এটি এক সম্ভাবনাময় মার্কেটপ্লেস। রাষ্ট্রযন্ত্রের উচিত বিষয়টি আমলে নেয়া।

Question-15 Mr x: ট্রেড করা ছাড়া ফরেক্স থেকে বিকল্প কোন আয়ের সুযোগ আছে কি ?

Mohabbatelahi:অবশ্যই। ট্রেড করা ছাড়া ফরেক্স থেকে বিকল্প আয়ের বহু সুযোগ রয়েছে। আমরা বাংলাদেশী ট্রেডারদের একটি কমন সমস্যা হচ্ছে আমরা ফরেক্স বলতে শুধু ট্রেডিং সফটওয়র কেন্দ্রিক বুঝি। কিন্তু আসলেই কি ফরেক্স এটুকুতে সীমাবদ্ধ ? মোটেও না। তাই এ বিষয়ে স্বচ্ছ ধারনা প্রয়োজন। আবশ্যই এ প্রসেঙ্গে আমি এফএক্স ফ্রিলেন্সিং সেকশনে কিছু আলোচনা করেছি। প্রয়োজনে সেটি দেখে নিতে পারেন।

Question-16 Mr x:ফরেক্স মার্কেটে পুঁজি হারানো সম্ভাবনা কতটুকু ?

Mohabbatelahi:পুঁজি হারানোর ভয় ফরেক্স মার্কেটে নেই৤ তবে যারা ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে কিছুই জানেনা শুধুমাত্র তারাই পুঁজি লস করে থাকে। হতেপারে তারা কয়েক বছরের পুরনো ফরেক্স ট্রেডার। কারন যে মার্কেটে পুঁজির ৮০% নিরাপদ রেখে ক্যারিয়ার গড়া যায় সেখানে পুঁজি হারানোর ভয় কেন আসবে ? তাছাড়া সকলেই যদি পুঁজি হারাতো তবে অতি অল্প সময়ে এ মার্কেট এত জনপ্রিয়তা অর্জন করার কথা নয় ? সুতরাং আপনার যথাযথ প্রস্তুতিই পারে আপনার দীর্ঘ যাত্রা কে নিরাপদ ও সফল করতে। তাই প্রশিক্ষনের কোন বিকল্প নেই।

Question-17 Mr x:আপনি কিভাবে ফরেক্স শিখেছেন ? এবং আপনার প্রশিক্ষন কোর্স কতটুকু বাস্তব সম্মত ?

Mohabbatelahi:আমি কোন প্রকার প্রশিক্ষন কিংবা কাউকে অনুসরন করে ফরেক্স শিখিনি। আমি যা কিছু শিখেছি নিজ ট্রেডিং জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে। তবে এর জন্য সোর্স হিসেবে ব্যবহার করেছি গুগল সার্চ ইঞ্জিন কে, বলতে গেলে গুগলই আমার শিক্ষক৤ এবং আমি যা প্রশিক্ষন দিচ্ছি তা আমার দীর্ঘ ৯ বছরের ট্রেডিং অভিজ্ঞতা ও গবেষনা থেকে যা সম্পূর্ন তথ্য ভিত্তিক ও শতভাগ বাস্তব সম্মত৤ ফলে আপনি আমার ট্রেনিং সিলেবাস কে কারো সাথে মিলাতে পারবেন না। কারন ট্রেনিং কোর্সটি গতানুগতিক ট্রেনিং সিলেবাস থেকে সম্পুর্ন ব্যাতিক্রম। বিগত দিনে যারা ট্রেনিং গ্রহন করেছে কেবল তারাই এর প্রকৃত বাস্তবতা উপলব্ধি করতে সক্ষম হয়েছে।

is forex legal in bangladesh
footer image
footer image

ফরেক্স ট্রেডিং সমগ্র বিশ্বে উম্মুক্ত হলেও বাংলাদেশে এটি স্বীকৃত নয়।ফলে ফরেক্স চিটাগাং কাউকে এ মার্কেটে বিনিয়োগে উৎসাহিত করেনা এবং কোন ব্রোকারের প্রতিনিধিত্ত ও করেনা।অন্য দশটি ফ্রিল্যান্সিং প্রজেক্টের মতই কিভাবে অর্থ বিনিয়োগ ছাড়াই ৫ট্রিলিয়ন ডলারের এ মার্কেটের হুমুখী সুবিধাগুলো কে কাজে লাগিয়ে একটি সুন্দর ক্যারিয়ার গড়া যায় শুধু মাত্র তাই প্রস্তাব করে।এছাড়া ফরেক্স চিটাগাংয়ের সেবাগুলো বিশ্বব্যাপী। তথ্যপ্রযুক্তির যোগে জানার অধিকার নিয়েই মূলত এ যাত্রা।সুতরাং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যোগে আপনার অন্ধত্ব আমার জন্য জন্য কখনোও প্রতিবন্ধক হতে পারেনা।

©copyright Forex Chittagong 2013-2019

Facebook Facebook Facebook Linkdin youtube youtube